সরস্বতি পূঁজা উপলক্ষে গোপালগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট

সরস্বতি পূঁজা উপলক্ষে গোপালগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট
সনাতন ধর্মবলম্বীদের বিদ্যার দেবী সরস্বতি। আগামী বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারী) হিন্দু ধর্মীয় মতে অনুষ্ঠিত হবে বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূঁজা। পঞ্জিকা মতে মাঘ মাসের শুক্লাপক্ষের পঞ্চমী তিথিতে হিন্দু শিক্ষার্থীরা বিদ্যা দেবীর আশির্বাদ লাভের আশায় সরস্বতী পুঁজা করে থাকেন।

এ পূঁজাকে কেন্দ্র করে জেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট। বিভিন্ন বয়সের মানুষ এসব হাট থেকে কিনে নিচ্ছেন প্রতিমা। জেলার বাসা-বাড়ী ও বিভিন্ন মন্দিরে পূঁজার আয়োজন করা হচ্ছে।

এ পূঁজার প্রধান অনুসঙ্গ হল প্রতিমা। জেলা শহরের গোহাট সার্বজনীন কালীবাড়ী, সদর উপজেলার সাতপাড়, বৌলতলী, ভেন্নাবাড়ী, রঘুনাথপুর, কোটালীপাড়া উপজেলার রামনগর, রাধাগঞ্জ, ধারাবাশাইল, ভাঙ্গারহাট, ঘাঘর বাজার হিরণ, সিকিরবাজার, বাঁশবাড়ীয়া ও বালিয়াভাঙাসহ জেলার ৩০টি স্থানে বসেছে সরস্বতী প্রতিমার হাট। জেলা শহরের গোহাট সার্বজনীন কালীবাড়ী জেলার সবচেয়ে বড় প্রতিমার হাট। জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিমা কারিগরেরা (পাল) এখানে প্রতিমা এনে বিক্রি করছেন। এসব প্রতিমা বেচা-বিক্রি চলবে আগামী বুধবার রাত পযর্ন্ত।

হাটে ছোট বড় মিলিয়ে প্রায় দুই থেকে তিন হাজার প্রতিমা নিয়ে বিক্রি করার জন্য বসে আছে প্রতিমা শিল্পীরা। যে যার পছন্দ আর সাধ্য মত কিনছেন প্রতিমা। হাটে আনা এক একটি প্রতিমা বিক্রি হচ্ছে আড়াইশো থেকে ১০ হাজার টাকায়। শুধু প্রতিমাই নয় এ হাটে বিক্রি হচ্ছে ফুল, মালা, মিষ্টিসহ পূঁজার অন্যান্য উপকরনও। শিক্ষার্থীরা অধীর আগ্রহে সারা বছর অপেক্ষা করে থাকেন দেবীর পায়ে অঞ্জলী দেবার জন্য।

জেলা শহরের বাসিন্দা গৃহবধূ সম্পা সাহা বলেন, আমার মেয়ের বয়স চার বছর হলো। এবার তাকে স্কুলে ভর্তি করেছি। সেজন্য বিদ্যার দেবী মা সরস্বতির আশির্বাদ পাওয়া জন্য ঘরে সরস্বতী পূজার আয়োজন করা হয়েছে।   

প্রতিমা কিনতে আসা ক্রেতা কবিতা সাহা ও সুজন ঘোষ জানান, প্রতি বছরের মত এ বছর বাড়ীতে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে। সেজন্য গোহাট সার্বজনীন কালীবাড়ীতে সরস্বতী প্রতিমা কিনতে এসেছি। এখানে ছোট প্রতিমার দাম ২৫০ টাকা থেকে বড় প্রতিমার দাম ১০ হাজার টাকা পয্যন্ত বিক্রি করা হচ্ছে।

কোটালীপাড়া উপজেলার হিজল বাড়ী থেকে প্রতিমা কিনতে করতে আসা স্বপন বর্ণিক বলেন, এ বছর আমি প্রথম সরস্বতী মায়ের পূঁজা করবো। তাই পূঁজা উপলক্ষে কালিগঞ্জ হাটে এসে প্রতিমা কিনলাম। একটা প্রতিমা ১৬০০ টাকা দিয়ে কিনেছি। সরস্বতী মাকে কিনে আমি খুব খুশি।

কোটালীপাড়া উপজেলার বালিয়াভাঙ্গা থেকে প্রতিমা নিয়ে আসা জয় পাল বলেন, প্রতিবছর কালিগঞ্জ বাজারে আমরা প্রতিমা নিয়ে আসি বিক্রি করার জন্য। তাই এ বছরও সরস্বতী পূজা উপলক্ষে প্রতিমা নিয়ে এসেছি বিক্রি করার জন্য। এবছর অন্যান্য বছরের চেয়ে ভালো দামে প্রতিমা বিক্রি করতে পারছি।

কোটালীপাড়া উপজেলার মঠবাড়ী থেকে আসা প্রতিমা শিল্পী রামপাল বলেন, এ বছর সরস্বতী প্রতিমা ভালো দামে বিক্রি করতে পারছি। সবকিছুর দাম বেড়ে যাওয়ায় প্রতিমার দামও বেড়েছে। অন্যান্য বছরে যে দামে প্রতিমা বিক্রি করতাম তার চেয়ে বেশি দামে এবছর প্রতিমা বিক্রি করতে পারছি।

সরস্বতী দেবীকে সাজাতে উপকরণ নিয়ে হাটে আসা সঞ্জয় ফেলিয় জানান, বিগত দুই বছর করোনার কারণে সীমিত আকার পূজা হয়েছে। তাই পূজার উপকরণ কম বিক্রি ছিলো। এবছর সরস্বতী পূজার আনন্দটা বেশি তাই প্রতিমা বেশি বিক্রি হচ্ছে। প্রতিমা সাজানোর ফুল মালা ও পূজার অন্যান্য উপকরণগুলো বিক্রি হচ্ছে বেশি। খুব ভালো বিক্রি হওয়ায় খুব খুঁশি।


গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি:
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url