গোপালগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ভাবীর গায়ে আগুন দিলো দেবর

গোপালগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ভাবীর গায়ে আগুন দিলো দেবর
গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বড় ভাইয়ের স্ত্রী সুফি বেগমকে (৫০) বাড়ির উঠানে গাছের সাথে বেঁধে গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে দেবর লিয়াকত মোল্লা (৪৯) তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল ইউনিয়নের বাঘঝাপা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

কাশিয়ানী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফিরোজ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আহত সুফি বেগম কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল ইউনিয়নের বাঘঝাপা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য ইউসুফ আলী মোল্লার স্ত্রী।

ওসি ফিরোজ আলম জানান, কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল ইউনিয়নের বাঘঝাপা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য লিয়াকত মোল্লা তার পৈতৃক সম্পত্তির প্রাপ্য অংশ বিক্রি করে চলে যায়। পরে সে আবারো সম্পত্তি দাবি করলে আপন ভাই অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য ইউসুফ আলী মোল্লার সাথে দীর্ঘ দিন ধরে পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

এ বিরোধের জের ধরে মঙ্গলবার সকালে লিয়াকত মোল্লা তার ভাবী সুফি বেগমকে ঘর থেকে বাইরে এনে উঠানে থাকা পেয়ারা গাছের সাথে বেঁধে তার গোয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে আর শরীরের অধিকাংশ পুড়ে গেলে মারাত্মক আহতাবন্থায় প্রথমে কাশিয়ান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে অবস্থধার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

ওসি আরো জানান, এ ঘটনার পর অভিযুক্ত লিয়াকত মোল্লা বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে। তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছেন ওসি।

এর আগেও ওই দেবর তার ভাবীর মাথার চুল কেঁটে দিযেছিল। পরে শালিশ মিমাংশা করে বিষয়টি মিটিয়ে নেয়া হয় বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে।


গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url